সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে মানবতা বিরোধী অভিযোগ দায়ের

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :: সৌদি আরবের যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান এবং দেশটির শীর্ষ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মানবতা বিরোধী অপরাধের একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। জার্মানির একটি আদালতে এই অভিযোগ দায়ের করেছে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা বিষয়ক একটি গ্রুপ রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্স (আরএসএফ)।

জার্মানির কার্লসরুহে ফেডারেল কোর্ট অব জাস্টিসে সরকারি কৌঁসুলির অফিসে ৫০০ পৃষ্ঠার এই অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সেখানে সৌদি আরবের সাংবাদিকদের ওপর ‘ব্যাপক এবং পদ্ধতিগত’ নিপীড়নের অভিযোগের কথা উল্লেখ করা হয়।

এছাড়া বিনা বিচারে ৩৪ সাংবাদিককে আটক রাখা এবং ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে। আরএসএফ’র মহাসচিব ক্রিস্টোফে ডেলোয়ের বলেছেন, এই সাংবাদিকরা বেআইনিভাবে হত্যা, নির্যাতন, যৌন সহিংসতা ও জবরদস্তি এবং জোরপূর্বক গুমের শিকার হয়েছেন।

আরএসএফ বলছে, তারা আশা করছে যে প্রিন্স মোহাম্মদ এবং শীর্ষ চারজন সৌদি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে করা এই অভিযোগের ‘সিচুয়েশন অ্যানালাইসিস’ জার্মানির সরকারি কৌঁসুলিরা। এরই প্রেক্ষিতে সাংবাদিকদের টার্গেট করে মানবতা বিরোধী অপরাধ সংঘটিত হয়েছে কিনা সেটির একটি আনুষ্ঠানিক তদন্ত শুরুর ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছে আরএসএফ।

জার্মানির আইন অনুযায়ী, দেশটির সঙ্গে সরাসরি কোনও সংশ্লিষ্টতা না থাকলেও অন্য কোনও দেশে সংঘটিত হওয়া অপরাধের বিচার করার এখতিয়ার রয়েছে জার্মানির আদালতের। এজন্য নিজেদের অভিযোগ দায়েরের জন্য আরএসএফ জার্মানিকে বেছে নিয়েছে।

একাত্তরেরকথা/ইআ