টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও বর্ণবাদী আচরণের বিপক্ষে লড়বে পোলার্ডরা

স্পোর্টস ডেস্ক :: বর্ণবাদী আচরণে আমেরিকান শ্বেতাঙ্গ পুলিশের নির্যাতনে নিহত বাস্কেটবল খেলোয়াড় জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুকে এখনো ভুলতে পারেননি ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও হাঁটু গেড়ে বসে প্রতীকী প্রতিবাদ জানাবেন বলে জানান ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক পোলার্ড।

দুবাইয়ে অনুশীলন শেষে গণমাধ্যমকে পোলার্ড জানান, প্রতিটি ম্যাচের আগে হাটুঁ গেড়ে “ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার” বর্ণবাদী আন্দোলনে একাত্মতা পোষণ করবো।

পোলার্ড বলেন, “এই মুহূর্তে আমি মনে করি প্রতিবাদ চালিয়ে যেতে হবে। তার কারণ, দল হিসেবে আমরা আপাতত এটাই বিশ্বাস করি। বিষয়টা আমাদের হৃদয়ের সঙ্গে বেশ ঘনিষ্ঠ পূর্ণ। আশা করছি আমরা এই আন্দোলন চালিয়ে যেতে পারব।”

অবশ্য এ প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে একবার বিতর্কের মুখোমুখি হতে হয়েছিলো ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটারদের। গত বছর আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে হাঁটু গেড়ে প্রতিবাদ জানানোর পর হোম সামারে ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার বন্ধ করে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। পরবর্তীতে স্বদেশি সাবেক পেসার মাইকেল হোল্ডিংয়ের ব্যাপক সমালোচনার শিকার হন ক্যারিবিয়ানরা।

তবে এ বছরের শুরুতে অস্ট্রেলিয়া দল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে এলে তারাও হাঁটু গেড়ে স্বাগতিকদের সঙ্গে একতত্মতা প্রকাশ করতে চাওয়ার আগে পোলার্ড বলেছিলেন, তিনি চান না প্রতিপক্ষ দল হাঁটু গেড়ে বসুক। আমরা এই কাজটি করছি আপনাদের সহানুভূতি ও সমর্থন পাওয়ার জন্য।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ক্যারিবীয়দের প্রথম ম্যাচ ইংল্যান্ডের সঙ্গে ২৩ অক্টোবর। এই ম্যাচে পোলার্ডদের সঙ্গে ইংল্যান্ডেরও এ আন্দোলনে সামিল হবেন কী না এমন প্রশ্নে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক বলেন, বর্ণবাদ নিয়ে একেকজনের একেক রকম মত থাকতে পারে তাই আমি কাউকে বলতে পারি না বা প্রত্যাশা করতে পারি না এরকম কিছু করবে কোনও দল আমাদের সঙ্গে। কারণ প্রত্যাশা করলে হতাশ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এ ব্যাপারে ইংলিশ পেসার ক্রিস জর্ডান জানান, ব্যাপারটা নিয়ে টিম ম্যানেজমেন্টে কোনও আলোচনা হয়নি এখনও। যদি দলের সবাই এ ব্যাপারটি দৃঢ়ভাবে অনুভব করে তবে অবশ্যই আমরা এই কাজটি করব।

একাত্তরেরকথা/ইআ-০৪